মুলতানি মাটির উপকারিতা

মুলতানি মাটির উপকারিতা অনেক। কারণ ম্যাগনেসিয়াম ক্লোরাইডে সমৃদ্ধ এই মুলতানি মাটি ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা প্রাকৃতিকভাবে দূর করে ত্বককে ভিতর থেকে সুন্দর করে তোলে। মুলতানি মাটির ব্যবহার ত্বককে উজ্জ্বল করার সাথে সাথে ত্বকের কোষ পুনর্গঠনে সাহায্য করে। ত্বকের যত্নের পাশাপাশি এটি চুলের যত্নেও সমানভাবে কার্যকরী। 

মুলতানি মাটির উপকারিতা

জ্বালাভাব কমায় 

মুলতানি মাটি ত্বক ঠান্ডা করে। ফলে গরমে এই মাটি ব্যবহার করলে জ্বালাভাব কমে। গরমে এই মাটি ব্যবহার করলে আরাম পাওয়া যায়।

ত্বকে রক্ত চলাচল বাড়ে 

এই মাটি ত্বকে রক্ত রক্ত চলাচল বাড়িয়ে দেয়। এতে ত্বকের মৃত চামড়া উঠে যায়। ফলে ত্বক সতেজ থাকে।

পিগমেন্টেশন হ্রাস করে 

রোদের কারণে এই সময়ে ত্বকের পিগমেন্টেশনের মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। পিগমেন্টেশনের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে এই মাটি। এর জন্য মুলতানির মাটির সঙ্গে নারকেলের জল এবং কিছু চিনি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। সেটি ফেসপ্যাক হিসাবে ব্যবহার করুন।

ত্বকের সংক্রমণ কমায়

মুলতানি মাটিতে ত্বকের সংক্রমণ ঠেকানোর মতো কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষত এবং কেটে যাওয়া জায়গায় উপশম করতে পারে। এই ক্ষতগুলিতে পেস্ট হিসাবে এই মাটি লাগান। দ্রুত সংক্রমণ সারবে।

অ্যালার্জি কমানো 

ত্বকের যে কোনও অ্যালার্জি সারাতে সামান্য মুলতানি মাটিই যথেষ্ট। এর সঙ্গে সামান্য গোলাপজল মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগালে আরাম পাওয়া যায়।

ত্বকের উপকার করে 

মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে সাহায্য করে। ফলে তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে এর ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়। যাদের ত্বক অয়েলি তারা মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে মুখে লাগান। এই প্যাকটি তেল নিয়ন্ত্রণে খুব ভালো কাজ করে আর যাদের ত্বক শুষ্ক তারা মুলতানি মাটির সাথে কাঁচা দুধ এবং আমন্ড পেস্ট মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। তবে ত্বক বেশি শুষ্ক হলে মুলতানি মাটি ব্যবহার না করাই ভালো।

ব্রণের উপকার করে 

ব্রণের দাগ দূর করতে পরিমাণ মত মুলতানি মাটি, টমেটোর রস, কাঁচা হলুদ এবং স্যানডালউড পাউডার মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি মুখে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি খুব ভালো ক্লিনজার হিসেবেও কাজ করে। সপ্তাহে ২-৩ দিন এটি ব্যবহার করুন। ধীরে ধীরে মুখের দাগ দূর হয়ে ত্বক উজ্জ্বল এবং সুন্দর হবে।

মুখের পোড়া দাগ দূর করতে পারে  

মুখে সূর্যের পোড়া দাগ বা পিগমেনটেশন দূর করতেও মুলতানি মাটি সমানভাবে কার্যকরী। আমন্ড অয়েল বা ক্যাস্টর অয়েল এর সাথে মুলতানি মাটি মিশিয়ে মুখে লাগান। এটি ত্বকের পিগমেনটেশন দূর করার সাথে সাথে ত্বক নরম করতেও সাহায্য করে।

ত্বককে বার্ধক্যের ছাপ থেকে রক্ষা করতে পারে 

ত্বককে বার্ধক্যের ছাপ থেকে রক্ষা করতে এক চা চামচ মুলতানি মাটির সাথে এক চা চামচ টক দই এবং একটি ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এবার এটি সারা মুখে ভালো মত লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বক টানটান করে এবং স্কিন টোন সমান করতে সাহায্য করে।

ব্রণের সমস্যা যদি খুব বেশি হয়ে থাকে তাহলে কিছু নিম পাতা বেটে মুলতানি মাটির সাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান। ১০-১৫ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ব্রণের সমস্যা কমে যাবে।

নবীনতর পূর্বতন