মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

ব্রণ, কালোছোপ কিংবা ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে বহু আগে থেকেই ব্যবহার হয়ে আসছে মুলতানি মাটি। এছাড়া চুলে কিন্ডিশনার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। তবে এই উপাদান দিয়ে রূপচর্চায় ভালো ফল পেতে জানতে হবে কিছু পদ্ধতি। রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অবলম্বনে মুলতানি মাটি দিয়ে রূপচর্চায় কিছু পদ্ধতি এখানে দেওয়া হল।

মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

ব্রণ ও ফুসকুড়ি দূর করতে 

ত্বকের নিচের স্তরে ময়লা ও জীবাণু যেয়ে ব্রণ ও ফুসকুড়ির মতো সমস্যা দেখা দেয়। যে কোনো উৎসবের আগে ত্বকের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে কেবল সাধারণ পানি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করাই যথেষ্ট নয়।

এক্ষেত্রে মুলতানি মাটি বেশ কার্যকর। এটা তেল শোষণ করে, ত্বক পরিষ্কার রাখে এবং ব্রণ ও ফুসকুড়ি হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

সপ্তাহে একদিন মুলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে ত্বকে লাগান। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক পরিষ্কার হবে, ব্রণ কমবে।  

কালো দাগ 

কাজের চাপ, ঘুম কম হওয়া ইত্যাদি কারণে চোখের নিচে কালো দাগ পড়তে পারে।

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে মুলতানি মাটি ব্যবহার করতে পারনে। এটা রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় ও চোখের নিচের ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। আলুর প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান চোখের কালো দাগ দূর করে।

মুলতানি মাটি ও আলুর রস একসঙ্গে ব্যবহার করুন। আলুর রস সংগ্রহ করে রেফ্রিজারেইটরে রেখে দিন। পরে এর সঙ্গে মুলতানি মাটি মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে যেখানে যেখানে কালচে-ছোপ আছে সেখানে লাগান। শুকানোর জন্য ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

শুষ্ক ত্বকের জন্য মুলতানি মাটির ব্যবহার

আমার ত্বক প্রচন্ডরকম শুষ্ক। আমি গত ৩ বছর ধরে ফেইসপ্যাক হিসেবে মুলতানি মাটি ব্যবহার করে আসছি। শুরুতেই বলে নিচ্ছি আমি কিভাবে আমার সবচেয়ে পছন্দের এই ফেইসপ্যাকটি বানিয়ে থাকি।

মুলতানি মাটি এবং নিমের গুড়ার ফেসপ্যাক

উপাদানসমূহ

  • মুলতানি মাটি
  • নিমের গুঁড়া 
  • মধু
  • গোলাপজল

একটি পরিষ্কার পাত্রে পরিমাণমতো মুলতানি মাটি নিয়ে নিন। এর তিন ভাগের এক ভাগ নিমের গুড়া নিন। সাথে এক চা চামচ মধু এবং পরিমাণমতো গোলাপ জল নিয়ে মিশ্রণটি ভালোভাবে নেড়ে নিন।

মুখমন্ডল পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। আপনি চাইলে একটি তোয়ালে কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে তা দিয়ে ফেইস টা মুছে নিতে পারেন। এতে করে আপনার পোর্স ওপেন হয়ে যাবে। মুলতানি মাটি পোর্স ভিতর থেকে পরিষ্কার করতে সহায়তা করে থাকে।

মুখমণ্ডল শুকনো হবার পূর্বেই ফেইসপ্যাক টি এপ্লাই করুন। এবং ২০ মিনিট অপেক্ষা করে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এই প্যাকটি সপ্তাহে ৩দিন ব্যবহার করুন। স্ক্রাব এর পর এই প্যাক ব্যবহারে দ্বিগুন উপকারিতা পেতে পারেন।

এই ফেসপ্যাক আপনার ওপেন পোর্স ভিতর থেকে পরিষ্কার করে ত্বকে ব্রণ হবার প্রবনতা দূর করবে। এর পাশাপাশি ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে ত্বকের দাগ দূর করবে।

মুলতানি মাটি, মধু এবং টকদই এর ফেইসপ্যাক

উপাদানসমূহ

  • মুলতানি মাটি 
  • মধু
  • টক দই 
  • ভিটামিন ই ক্যাপসুল 
  • ফেসিয়াল অয়েল 
  • পানি

প্রথমে একটি পরিষ্কার পাত্রে ১ চা চামচ মুলতানি মাটি, ১ চা চামচ মধু, ১ চা চামচ টক দই নিয়ে মিক্স করি। মিক্সনটিতে ২-৩ ড্রপ ফেসিয়াল অয়েল এবং একটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল দিয়ে আবারো নেড়ে নেই। এই ঘন মিক্সনটিকে পরিমাণ মতো পানি মিশিয়ে পাতলা করে নিই।

আমরা সবাই জানি অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকে অনেক বেশি ময়শ্চার প্রয়োজন হয় তা শুষ্ক ত্বককে হাইড্রেড রাখবে। উপরোক্ত প্রতিটি উপাদান ই এই কাজ টি অনেক ভালো করে থাকে। সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার এ ত্বকে শুষ্কতার পরিমাণ যেমন কমে যাবে এর পাশাপাশি ত্বক ভেতর থেকে পরিষ্কার হয়ে উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

মুলতানি মাটি, বেসন ও মধুর ফেইসপ্যাক

উপাদানসমূহ

  • মুলতানি মাটি
  • বেসন
  • মধু 
  • পানি

প্রথমেই একটি পরিষ্কার পাত্রে ১ চা চামচ পরিমান মুলতানি মাটি, দেড় চামচ পরিমান বেসন নিয়ে তাতে ২ চা চামচ পরিমান মধু মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটিকে আরো পাতলা করবার জন্য পরিমানমতো পানি যোগ করুন।

মুখমণ্ডল ভালো ভাবে পরিষ্কার করে প্যাকটি ব্যবহার করুন। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করুন। বেসন এবং মুলতানি মাটি দুটোই উজ্জ্বলতা বাড়াতে সহায়তা করে। এই প্যাকটি ব্যবহার এর পূর্বে স্ক্রাব করে নিলে অনেক ভালো উপকারিতা পাওয়া যায়।

মুলতানি মাটি এবং মধুর ফেইসপ্যাক

যারা একদম কম সময়ের মধ্যে কম উপাদান দিয়ে ফেইসপ্যাক বানিয়ে ব্যবহার করতে চান তাদের জন্য রয়েছে এই ফেইসপ্যাকটি ।

উপাদানসমূহ

  • মুলতানি মাটি 
  • মধু 
  • পানি

নবীনতর পূর্বতন