Benefits of Aloe Vera


এলোভেরার উপকারিতা নিয়ে কথা বললেই অনেকের মাথায় প্রথমে আসে ত্বকের উপকারিতার কথা, কিন্তু তা একেবারেই ঠিক নয় কেননা এলোভেরা এক ধরনের আয়ুর্বেদিক ঔষধ। যা অনেক রোগ নিরাময়ে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। এলোভেরা কোষ্ঠকাঠিন্য, ওজন কমাতে এবং উচ্চ কোলেস্টেরল কমাতে দারুণ কাজ করে থাকে। আমাদের এই নিবন্ধনে আমরা এলোভেরার উপকারিতা, পুষ্টিগুণ, এবং এর অপকারিতা নিয়ে আলোচনা করবো। 

এলোভেরার উপকারিতা 

এলোভেরা মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে 

এলোভেরাতে রয়েছে অ্যাডাপ্টোজেন। যা আমাদের শরীরের প্রাকৃতিক ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করে। আর আমাদের শরীরের মধ্যে যতো প্রাকৃতিক ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে ততো আমরা মানসিক ভাবে আরাম পাবো। 

এলোভেরা হজমে সহায়তা করে 

হজম জনিত সমস্যা থেকে আমাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় রোগের সৃষ্টি হয়। তাই আমাদের সুস্বাস্থ্যের প্রাথমিক কাজ হলো পরিপাককে ঠিক রাখা। আর এই পরিপাক কে ভালো রাখতে অন্যতম নিয়ামক ভূমিকা পালন করে এলোভেরা। এলোভেরার রস পান করার মধ্য দিয়ে আপনি কোষ্ঠকাঠিন্য ও ডাইরিয়া থেকে মুক্তি পেতে পারেন। পরিপাক ও রেচন যন্ত্রকে বিভিন্ন ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া থেকে মুক্ত রাখতে প্রতিদিন এলোভেরার রস পান করুন। এই রস পান করার ফলে আপনার পেটে ক্রিমি হওয়ার সম্ভাবনাও একেবারে কমে যায়। 

এলোভেরা ওজন কমাতে সাহায্য করে 

যারা শরীরের ওজন নিয়ে খুব চিন্তিত তাদের জন্য এলোভেরার রস হতে পারে এক দারুণ খাবার। কেননা আপনি যদি প্রতিদিন এলোভেরার রস পান করেন তাহলে আস্তে আস্তে আপনার ওজন কমতে শুরু করবে।


এলোভেরা হার্টের ক্ষমতা বাড়ায় 

অনেক গবেষকরা একটি তথ্য দিয়েছেন যে, এলোভেরার রস খাওয়ার কিছুক্ষনের মধ্যেই শরীরের অক্সিজেনের মাত্রা বেড়ে যায় এবং যায় ফলে শরীরের রক্তের প্রভাহের মাত্রাও বেড়ে যায়। যার কারনেই শরীরের প্রতিটি অঙ্গের মতো হার্টের কর্মক্ষমতাও বেড়ে যায়। এর ফলে রক্তের মধ্যে থাকা খারাপ কলেস্টেরলের মাত্রাও অনেক কমে যায়। যার ফলে হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও কমে যায়। এবং হঠাৎ করে যে হার্ট অ্যাটাক হয় মানুষের, তার সম্ভাবনাও অনেক কমে আসে। 

এলোভেরা ক্ষতের চিকিৎসায় কাজ করে 

আপনার শরীরের মধ্যে যদি কোথাও কোন ক্ষত থেকে থাকে তাহলে আপনি এলোভেরার রস পান করে উপকার পেতে পারেন। তার কারণ হলো এলোভেরার মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমটরি উপাদান যা শরীরের মধ্যে প্রবেশ করে আপনার ক্ষত স্থান নিরাময়ের জন্য কাজ করা শুরু করে দেয়। আপনি চাইলে ক্ষত স্থানে এলোভেরার জেল লাগাতে পারেন, তাতে সমান উপকারই পাবেন। 

এলোভেরা হরমোনের ক্ষরণকে ঠিক রাখতে পারে

এলোভেরা রস যারা প্রতিদিন পান করেন তারা একটা জিনিস খুব ভালো ভাবেই খেয়াল করে থাকেন। যেমন তাদের শরীরের ভিতরে কিছু একটার পরিবর্তন হয়েছে তারা তা খেয়াল করতে পারেন আর এই পরিবর্তনের পেছনে কাজ করছে হরমোন। তার কারণ হলো হরমোনের ক্ষরন ঠিক মতো শুরু হয়েছে বলেই তাদের শরীরের এই পরিবর্তন। যার ফলে আপনার শরীরের হরমোনাল ইমব্যালেন্স হওয়ার সম্ভাবনা আর থাকে না।

এলোভেরা পুষ্টির ঘাটতি দূর করে

নিয়মিত যারা এলোভেরার রস পান করেন তাদের শরীরের প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং মিনারেলর ঘাটতি দূর হয়। সেই সঙ্গে শরীরের মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ঘাটতিও খুব একটা থাকে না। আর আমরা জানি যে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হল সেই উপাদান যা শরীরকে রোগ মুক্ত রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই প্রতিদিন এক গ্লাস হলেও এলোভেরার রস পান করুন।


এলোভেরা শরীর থেকে টক্সিক উপাদানকে বের করে দেয় 

এলোভেরার রস যদি খালিপেট প্রতিদিন পান করেন তাহলে আপনার শরীরের মধ্যে এতো পরিমানের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট তৈরি হবে যে দেহের প্রতিটি কোনায় জমে থাকা টক্সিক উপাদান গুলো বের হতে শুরু করবে। যদি আপনার শরীরে এই টক্সিক এর মাত্রা বেড়ে যায় তবে তা শরীরের জন্য ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনবে। তাই আগে থেকেই সচেতন থাকলে তা আপনার শরীরের জন্য অনেক মঙ্গল বরে আনবে।

এলোভেরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটায় 

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য এলোভেরার রস অনেক গুরুত্ব বহন করে। কারণ আপনি যদি প্রতিদিন এলোভেরার রস পান করেন তাহলে আপনার সাধারণ ফ্লু, সর্দি, কাশি জাতীয় রোগ থেকে আপনি মুক্তি পাবেন।আপনি অতন্ত্য ছয় মাস এলোভেরার রস পান করে দেখতে পারেন যে আপনারা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় কি না। 

এলোভেরা লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন বাড়াতে সক্ষম
 
রক্তের লোহিত রক্ত কণিকার কম থাকার কারণে অনেক নারী অ্যানিমিয়ায় ভুগে থাকেন। এমতো অবস্থায় আপনি এলোভেরার রস পান করতে পারেন। কারণ এলোভেরার রস আপনার রক্তকে উজ্জীবিত রাখবে। যার ফলে আপনার অ্যানিমিয়ার কোন সমস্যা হবে না।

এলোভেরা পুষ্টিগুণ 

এক কাপ এলোভেরা রসে যে পরিমান পুষ্টিগুন রয়েছেঃ
  • ক্যালরিঃ ৮
  • প্রোটিনঃ ১ গ্রাম
  • ফ্যাটঃ ১ গ্রাম
  • কার্বোহাইড্রেটঃ ৩ গ্রাম
  • ফাইবারঃ ২ গ্রাম
  • সুগারঃ ১ গ্রাম
তাছাড়া রয়েছে ভিটামিন-সি, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-ই, ফলিক এসিড, ক্যালসিয়াম, এবং ম্যাগনেশিয়াম।

এলোভেরার অপকারিতা 

এলোভেরার যেমন অনেক উপকারিতা রয়েছে তেমনি রয়েছে কিছু অপকারিতা। নিচে আমরা এলোভেরার কিছু অপকারিতা নিয়ে আলোচনা করবো। 

১. ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে।
২. গর্ভবতী ও প্রসূতি নারীদের ক্ষেত্রে ক্ষতিকর হতে পারে।
৩. এলার্জি হতে পারে। 
৪. হাইপোক্যালেমিয়ার কারণ হিসাবে হতে পারে। 
৫. লিভারের প্রদাহ হতে পারে। 
৬. রক্তচাপ কমে যেতে পারে। 
৭. পাইলস বা হেমোরয়েডসের সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 


নবীনতর পূর্বতন