মুলতানি মাটি ও গোলাপ জলের ব্যবহার

গোলাপজল ত্বকের উজ্জ্বলতা আনে। মুলতানি মাটির সঙ্গে ব্যবহার করলে এটি ত্বকের স্বাভাবিক তেলের ভারসাম্য রাখতে সাহায্য করে। এক টেবিল চামচ মূলতানি মাটির সঙ্গে এক টেবিল চামচ গোলাপজল মিশিয়ে তৈরি প্যাক ১৫ মিনিট পরিষ্কার মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে। তারপর ধুয়ে নিয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে। 

মুলতানি মাটি ও গোলাপ জলের ব্যবহার

গোলাপ জল এবং মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক

মুলতানি মাটি সিলিকা, জিঙ্ক, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম এবং অক্সাইডের মতো খনিজ পদার্থ সমৃদ্ধ। এটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নেয় এবং ত্বকের ছিদ্রগুলোকে উন্মুক্ত করে পরিষ্কার করতেও সহায়তা করে।

এই ফেস প্যাকটি তৈরি করতে, ১ টেবিল চামচ মুলতানি মাটির সাথে ১ টেবিল চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। মুখ ধুয়ে মুছে নিন। তারপর মুখে এবং গলায় এই পেস্টটি সমানভাবে লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট কিংবা সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা জল দিয়ে আলতো করে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত একবার এই প্যাকটি ব্যবহার করুন।

মুলতানি মাটির সাথে গোলাপ জল ও মধু

উপকরণ 

  • ১ কাপ পরিমান মুলতানি মাটি
  • ২টেবিল চামচ গোলাপজল
  • সামান্য মধু

খাঁটি মধু নেওয়ার চেষ্টা করবেন। বাজারজাত করা মধুর মধ্যে ভেজালের পরিমাণ বেশি থাকে। তাই খাঁটি মধু যদি হাতের কাছে না থাকে এবং যেহেতু আমাদের ত্বক অনেক সেনসিটিভ একটি বিষয়, ভেজালের কাছে না যাওয়াই ভালো। হাতের কাছে থাকলে আমরা এই প্রেক্ষিতে মধু ব্যবহার করব। আর মধু যদি না থাকে শুধু গোলাপ জল আর মুলতানি মাটি দিয়ে এই প্যাকটি তৈরি করবেন।

কিভাবে প্যাকটি তৈরি করবেন

একটি বাটিতে আপনার নেওয়া মুলতানি মাটি ও গোলাপজল দিয়ে গোলাপ জলের সাথে মুলতানি মাটি গুলো ভালো মত মিক্স করে আপনার মুখের মধ্যে লাগাবেন। এটি আপনার মুখের ফেসওয়াশ এর মত কাজ করবে। আপনারা যখন ঘর থেকে বাইরে যান, বিভিন্ন ধুলাবালি আমাদের মুখে লাগে কিন্তু আমরা বাড়ি থেকে বাসায় এসে বিভিন্ন ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করি। বাজারে যে সকল ফেইসওয়াশ পাওয়া যায় তার মধ্যে ৮০ শতাংশই ভেজাল। 

আর আমাদের মুখের মত সেনসিটিভ জায়গায় এই ভেজালের ব্যবহার না করাই ভালো। একটু সময় নিন, আমরা যদি ঘরোয়া ভাবে আমাদের মুখের পরিচর্চা করি তাহলে আমাদের মুখ দীর্ঘমেয়াদি একটি সৌন্দর্য পাবে। তাহলে বন্ধুরা আমরা ফেসওয়াশ যখন ব্যবহার করি তার জায়গায় এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারব। এই প্যাক টি আমরা দুই দিন মতো সংরক্ষণ করতে পারি ফ্রিজে রেখে। কিন্তু বন্ধুরা এই প্যাকটি তৈরি করা যেহেতু কঠিন নয় তাই ফ্রিজে সংরক্ষণ না করে তাৎক্ষণিক তৈরি করে মুখে লাগানোর সবচেয়ে নিরাপদ। 

আমরা যখন বাহির থেকে আসব, তখন এই প্যাকটি মুখে লাগাবো। লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলব।  যে কোন একটি মসরাইজার ক্রিম আমরা ব্যবহার করব। এটি আপনি দিনে দুইবার ব্যবহার করতে পারেন। কোন ধরনের সাইডএফেক্ট ছাড়াই এটি আপনাকে দিবে সুন্দরতম একটি ত্বক। এবং দীর্ঘদিন ব্যবহারে আপনি পাবেন লাবন্যময়ী চেহারা।

নবীনতর পূর্বতন