Ads- 1

৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায়

বিশেষজ্ঞদের মতে, সপ্তাহে ১ পাউন্ড পর্যন্ত ওজন কমানো সম্ভব। আর ৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানো তো কোনও ব্যপারই নয়! এখন আপনার কাজ কেবল একটা সঠিক রুটিন তৈরী করা। কিন্তু আপনাকে প্রচুর হাঁটতে হবে প্রতিদিন। জুড়ে জুড়ে হাঁটুন। 

৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায়

কোন সময় কি খাবেন 

ভোর সকালের করণীয়

সকালে ঘুম থেকে উঠে দাঁত ব্রাশ সেরে নিয়ে 40 থেকে 50 মিনিট হাটাহাটি করবেন। সকালবেলা হাঁটাহাঁটি করলে আপনার ওজন এবং পেটের মেদ দ্রুত কমে যাবে এবং হজম শক্তি বাড়বে, গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর হবে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে। 

ভোর সকালের নাস্তা

হাঁটাহাঁটির পর একগ্লাস লেবুর ও মধুর পানি খাবেন। এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে 1 চা চামচ মধু এবং একটি লেবুর অর্ধেক অংশ নিয়ে সঠিকভাবে মিশিয়ে নিয়ে পান করবেন। লেবুতে যদি এসিডিটি থাকে তাহলে লেবুর রস কমিয়ে নেবেন। অথবা খালি পেটে না খেয়ে হালকা কিছু খেয়ে তারপর খাবেন। প্রতিদিন সকালে লেবু মধুর পানি পান করলে আপনার শরীরের অতিরিক্ত ওজন দ্রুত কমতে থাকবে, সেইসাথে এই পানীয়টি আপনার ত্বক পরিষ্কার করবে, ব্রণ ওঠা রোধ করবে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করবে। 

সকালের খাবার 

সকালের নাস্তায় মাঝারি সাইজের গমের আটার রুটি খাবেন। রুটির সাথে এক কাপ রান্না করার সবজি খাবেন অথবা এক কাপ রান্না করা বুটের ডাল খাবেন। ডিম খাবেন একটা। একটা কুসুম ছাড়া সিদ্ধ ডিম খাবেন। আধা কাপ টক দই খাবেন। টক দই পেটের চর্বি কমাতে বিশেষ উপকারী খাবার। মেদ কমানোর পাশাপাশি এটি শরীরের ক্যালসিয়াম, ফসফরাস এবং ভিটামিন ডি এর যোগান দেয়। ভিটামিন ডি দাঁত এবং হাড়কে শক্তিশালী করে।

মধ্য সকালের নাস্তা 

25 গ্রাম পরিমাণ ভাজা কলাই খাবেন। কলাইতে শর্করা এবং ফ্যাটের পরিমাণ খুবই কম থাকে এবং প্রোটিনের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। তাই ওজন কমাতে এটি বেশ কার্যকরী একটি খামার। এক কাপ পরিমান মৌসুমি সবজির সালাদ খাবেন। অথবা দেড়শ থেকে দুইশ গ্রাম ওজনের একটি কাঁচা শসা খাবেন। সালাদে ক্যালরির পরিমাণ নেই বললেই চলে। এই খাবার আপনার পেট ভরাবে ঠিকই কিন্তু কোন ক্যালোরি দিবেনা। যার ফলে অতিরিক্ত ওজন কমবে এবং শরীরের শক্তি বৃদ্ধি পাবে।

দুপুরের খাবার 

দুপুরের খাবারে ভাত খাবেন এক কাপ। ভাতের সাথে শাক খাবেন 1 কাপ। 1 কাপ রান্না করা সবুজ অথবা রঙিন পাতাযুক্ত শাক খাবেন। এর সাথে খাবেন সবজিসহ রান্না করা একটা বড় সাইজের মাছের টুকরা। এখানে সবজির পরিমাণ হবে তিন সার্ভিং অর্থাৎ দেড় কাপ এবং মাছের টুকরা ওজন হবে 120 গ্রামের মতো অথবা সবজিসহ রান্না করা ৪ থেকে 5 টুকরা মাংস খাবেন। এখানে মাংসের পরিমাণ হবে 120 গ্রামের মতো। সেই সাথে আরও খাবেন আধাকাপ পরিমাণ এর সবজির সালাদ এবং এক টুকরা লেবু।

বিকেলের নাস্তা 

বিকেলের নাস্তায় সিজনাল ফল খাবেন 2 সার্ভিং, 100 থেকে 150 গ্রাম এর মত। আপনার আশেপাশেই ঋতুভেদে যে ফল পাওয়া যায় সেই ফল খাবেন। তবে খেয়াল রাখবেন আপনার ফলের তালিকার যেন তিনভাগের দুইভাগ টকজাতীয় ফল থাকে। বিকেলের নাস্তায় এক কাপ গ্রিন টিও খেতে পারেন। তবে সম্ভব হলে খাবেন না হলে খাবেন না।

রাতের খাবার 

রাতের খাবারের রুটি খাবেন একটা একটা মাঝারি সাইজের গমের আটার রুটি খাবেন রুটির সাথে সবজি রান্না করা দুই থেকে তিন টুকরা মাংস খাবেন।  অথবা সবজিসহ রান্না করা এক কাপ ছোট মাছের তরকারি খাবেন। অথবা এক কাপ নিরামিষ তরকারি খাবেন।

এগুলো মেনে চলুন 

  • জানেন কি? টিভি দেখার সময় খাবার খেলে স্বাভাবিকের তুলনায় ২৮৮ ক্যালোরি অতিরিক্ত খাবার পেটে চলে যায়। তাহলে ওজন কমাতে হলে টিভি দেখতে দেখতে খাওয়া বন্ধ করুন।
  • খাবারের সঙ্গে অবশ্যই সালাদ খাবেন।
  • ছোট থালায় খাবার খান।
  • খাবার নির্বাচনের ক্ষেত্রে সেদ্ধ, পোচ অথবা বেক করা খাবার খান। অবশ্যই সামান্য তেলে রান্না করা খাবার খাবেন।
  • খাবারের তালিকা থেকে চিনি বাদ রাখতে হবে।
  • পানি আর ফল খাবেন বেশি বেশি করে।
  • দিনের মধ্যে অনেকবারই আমরা ফোনে কথা বলি। ফোনে কথা বলার সময় হাঁটুন।

উল্লেখিত স্বাস্থ্যকর নির্দেশগুলো মেনে চলুন। আর মেনে চলুন সঠিক লাইফস্টাইল। ওজন কমিয়ে ফেলুন দ্রুত।

নবীনতর পূর্বতন